গন্ধবেণা, এর ইংরেজী নাম হচ্ছে Lemon grass, এটি Poales বর্গের Poaceae পরিবারের একটি ভেষজ উদ্ভিদ। এর বৈজ্ঞানিক নাম Cymbopogon citratus, এর অন্যান্য নামের মধ্যে গন্ধতৃণ, ভূস্তৃণ, অতিগন্ধা, সুগন্ধতৃণ, tanglad, barbed wire grass, silky heads, Cochin grass, Malabar grass, oily heads, fever grass, West Indian lemon grass ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

উৎসঃ ইন্টারনেট

এটি এক ধরনের তৃণ বা ঘাস জাতীয় উদ্ভিদ, উচ্চতা ৫/৭ ফুট, পাতা লম্বায় প্রায় ৩/৪ ফুট। এ ধরনের ঘাসে সাধারণত ফুল হয় না, তবে কদাচিৎ ফুল দেখা যেতেও পারে। ফুলের বোঁটা ছোট, পুষ্পদ-সরু ও একদিকে অবনত। এর ফুল উভলিঙ্গিক যা সাধারণত বর্ষাকালে ফুটে থাকে। তেলের জন্য ইন্দোনেশিয়া, শ্রীলঙ্কা, মিয়ানমার, মাদাগাস্কার, মরিশাস ও দক্ষিণ আমেরিকাতে এর চাষ করা হয়। এর পাতার রস বা ক্কাথ জ্বরঘ্ন, ঘর্মকারক, উদ্দীপক, মুখগহ্বর ও মাথার শৈ্লষ্মিক ঝিল্লীর প্রদাহের প্রতিষেধক এবং ম্যালেরিয়া রোগগ্রস্ত শোথরোগীর জন্য ফলপ্রদ। এ ছাড়া এটি কৃমিনাশক, ক্ষুধাবর্ধক, বিরেচক, শিশুদের কাসিতে লাভদায়ক, আন্ত্রিক রোগে ব্যবহার্য ও কামেচ্ছানাশক।

উৎসঃ ইন্টারনেট

গন্ধবেণা সিদ্ধ পানিতে দুধ ও চিনি মিশিয়ে চায়ের মতো পান করা যায়। ইন্দোনেশিয়াতে এই ঘাসের রস দিয়ে মসলাদার সুস্বাদু শরবত তৈরি করা হয়। বিভিন্ন স্যুপ তৈরীতেও লেমন গ্রাস ব্যবহৃত হয়। ইউনানি মতে এর রসে ৪০ দিন গন্ধক ভিজিয়ে রেখে রোদে শুকিয়ে নিয়ে ওই গন্ধক ২৫০ মিলিগ্রাম মাত্রায় পানের সঙ্গে সেবন করলে ক্ষুধা বৃদ্ধি পায়। গন্ধতৃণের তেল পেটফাঁপা ও আক্ষেপ নিবারক এবং আমাশয়ের মূল্যবান ওষুধ। এটি কলেরায় বমননিবারক, অবসাদনাশক ও বলকারক। পুরনো বাত, স্নায়ুশূল, মচকানো ব্যথা, আঘাতজনিত ব্যথায় এর তেল মালিশ করলে ভালো কাজ হয়। পিত্তজ্বরেও এটি ভালো কাজ করে। জ্বরের সঙ্গে শরীরে দাহ, পায়খানা হচ্ছে না, ক্ষুধা কম, পেটে অল্প-বিস্তর ব্যথাও আছে; অথচ এটি ম্যালেরিয়া বা টাইফয়েড জ্বর নয়; এক্ষেত্রে মূলসহ শুকনো ঘাস ২৫ গ্রাম নিয়ে ৫/৬ কাপ পানিতে সিদ্ধ করে, তাকে ২ কাপে পরিনত করে, ছেঁকে নিয়ে আধকাপ মাত্রায় দিনে ৪ বার করে খেতে হবে। এর ফলে ঘাম দিয়ে জ্বর ছেড়ে যাবে এবং অন্যান্য উপসর্গগুলোও চলে যাবে। এভাবে ২-৩ দিন সেবন করা দরকার। ক্ষুধামন্দা এবং পেট ফাঁপায় উপরোক্ত পদ্ধতিতে ক্কাথ তৈরি করে ১ সপ্তাহ খেলে ক্ষুধা বাড়তে আরম্ভ করবে ও পেট ফাঁপা কমে যাবে। তারপর আরো কিছুদিন ওই মাত্রায় দিনে দুবার করে খেতে হবে। ক্রিমির উপদ্রবে মূলসহ শুকনো ঘাসের ক্কাথ (১০-১২ গ্রাম মূলসহ শুকনো ঘাস ৩-৪ কাপ পানিতে সিদ্ধ করে ১ কাপ থাকতে নামিয়ে, ছেঁকে নিতে হবে) সকালে ও বিকালে মোট দুবারে কয়েকদিন সেবন করলে এর উপদ্রব থেকে রেহাই পাওয়া যায়। দেহের কোথাও যদি মচকে গিয়ে কিংবা আঘাতজনিত কারণে ব্যথা হয় এবং ফুলে যায় সেক্ষেত্রে লেমনগ্রাস অয়েল ১০ ফোঁটা করে দিনে ২/৩ বার খেতে হবে এবং ব্যথার স্থানে হালকাভাবে লাগিয়ে দিতে হবে। ২/৩ দিনে ব্যথা কমে যাবে। জনশ্রুতি আছে বাড়ীর চারপাশে যদি লেমন গ্রাস লাগাতে পারেন তাহলে আপনি মশার উপদ্রপ থেকেও রক্ষা পাবেন।

উৎসঃ ইন্টারনেট

তথ্যসূত্রঃ
1. Moynul  Islam  et  al.  (2020).  A  Survey  of  Medicinal  Plants  Used  by  Traditional  Healers  and  Indigenous  People  of  Shariatpur District, Bangladesh. J.  of Advanced  Botany  and Zoology, V7I4.05.  DOI:  10.5281/zenodo.3841153;
2. Cymbopogon caesius South African National Biodiversity Institute (SANBI), PlantZAfrica;
3. Blanco MM, Costa CA, Freire AO, Santos JG, Costa M (March 2009). “Neurobehavioral effect of essential oil of Cymbopogon citratus in mice”. Phytomedicine. 16 (2–3): 265–70. doi:10.1016/j.phymed.2007.04.007. PMID 17561386;
4. Leite JR, Seabra Mde L, Maluf E, et al. (July 1986). “Pharmacology of lemongrass (Cymbopogon citratus Stapf). III. Assessment of eventual toxic, hypnotic and anxiolytic effects on humans”. J Ethnopharmacol. 17 (1): 75–83. doi:10.1016/0378-8741(86)90074-7. PMID 2429120;
5. Bleasel N, Tate B, Rademaker M (August 2002). “Allergic contact dermatitis following exposure to essential oils”. Australas. J. Dermatol. 43(3): 211–3. doi:10.1046/j.1440-0960.2002.00598.x. PMID 12121401;
6. Ekpenyong, Christopher E.; Daniel, Nyebuk E.; Antai, Atim B. (January 2015). “Bioactive natural constituents from lemongrass tea and erythropoiesis boosting effects: potential use in prevention and treatment of anemia”. Journal of Medicinal Food. 18 (1): 118–127. doi:10.1089/jmf.2013.0184. ISSN 1557-7600. PMID 25162916;
7. Greer, John Michael (2016). The New Encyclopedia of the Occult (First ed.). Woodbury, MN: Llewellyn Publications. p. 500. ISBN 978-1-56718-336-8;
8. Yronwode, Catherine (2002). Hoodoo Herb and Root Magic: A Materia Magica of African-American Conjure. Forestville, California: Lucky Mojo Curio Company. p. 123. ISBN 978-0-9719612-0-3.

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here